আসামী র‌্যাশ এর মাথায় ছিল আইএস’র টুপি; তদন্ত হবে- আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৪:২৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০১৯

নয়াদেশ রিপোর্ট।।  হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলা মামলায় আট আসামীর মধ্যে একজনকে বেকসুর খালাস দিয়ে বাকী সাত আসামীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাত আসামীর মধ্যে রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ এর মাথায় সার্বক্ষণিকই ছিল আইএস এর লগোযুক্ত টুপি। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, আদালতে প্রবেশের পর থেকেই পুলিশ সদস্যদের সামনেই আইএস’র টুপি পরে ছিল র‌্যাশ।
এ ঘটনার পরই আদালত পাড়াসহ বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এলে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। সকলের একটাই প্রশ্ন পুলিশের সামনে কিভাবে র‌্যাশ মাথায় আইএস’র টুপি পড়াবস্থায় ছিল বা তার কাছে আইএস’র টুপি আসলই বা কিভাবে।
আদালত সূত্র জানায়, মৃত্যুদণ্ডাদেশের পর বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এজলাসকক্ষ থেকে আসামিদের এক এক করে আদালত চত্বরে প্রিজনভ্যানে নিয়ে যায় পুলিশ সদস্যরা। এসময় প্রত্যেকে স্বাভাবিক, হাস্যোজ্জ্বল ছিল। আসামিরা চিৎকার করে রায় মানি না, মানি না বলে শ্লোগান দিতে থাকে।
প্রিজনভ্যানে ওঠার আগে ও পরে আল্লাহু আকবর বলে রায় না মানার শ্লোগান দিয়ে রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ তার মাথায় আইএস’র লগোযুক্ত কালো টুপি পরে আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করতে থাকে।
এদিকে, মামলার রায় ঘোষণার সময় সচিবালয়ে সচিবালয় বিটের সাংবাদিকদের সাথে কথা বলছিলেন আইন মন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি রায়ে সরকারের সন্তুষ্টির কথা জানান।
এ সময় জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের প্রতীক সম্বলিত টুপি পরে এক আসামির এজলাসে প্রবেশের বিষয়ে তিনি বলেন, আমি কি এটার জবাব দিতে পারবো? এটা কী করে হলো সেটা নিশ্চয়ই তদন্ত করা হবে। কিন্তু কীভাবে আসলো এটা আমি এখানে জবাব দিতে পারবো না, আমার পক্ষে জবাব দেওয়া সম্ভবও নয়। কিন্তু নিশ্চয়ই এই ব্যাপারটার তদন্ত হওয়া উচিত।