আইন-শৃংখলা রক্ষা ও জননিরাপত্তায় ডিএমপি’র শ্রেষ্ঠ এসি হলেন মোঃ রাশেদ হাসান

প্রকাশিত: ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২০

নয়াদেশ রিপোর্ট॥ ঢাকা মহানগরের আইন-শৃংখলা রক্ষা ও জননিরাপত্তায় এবার শ্রেষ্ঠ হয়েছেন সবুজবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ রাশেদ হাসান। এছাড়া ডিএমপি’র শ্রেষ্ঠ বিভাগ হিসেবে যৌথভাবে নির্বাচিত হয়েছে ডিএমপি’র গোয়েন্দা বিভাগের পশ্চিম ও গোয়েন্দা উত্তর বিভাগ।
বৃহস্পতিবার সকালে ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সে ঢাকা মহানগরের আইন-শৃংখলা রক্ষা ও জননিরাপত্তা বিধানসহ ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে সবুজবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ রাশেদ হাসান সহ ডিএমপি’র পুলিশ সদস্যকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন তুলে দেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাঃ শফিকুল ইসলাম বিপিএম (বার)।
ফেব্রুয়ারি মাসে ডিএমপির আট ক্রাইম বিভাগের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছে গুলশান বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন মোঃ রাশেদ হাসান সহকারী পুলিশ কমিশনার (সবুজবাগ জোন), শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অফিসার ইনচার্জ) মোঃ আবুল হাসান পিপিএম (বার), অফিসার ইনচার্জ, শাহবাগ থানা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ দুলাল হোসেন , পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত), দারুসসালাম থানা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) মোঃ ইয়াসীন গাজী পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্), বাড্ডা থানা।
শ্রেষ্ঠ এসআই যৌথভাবে এসআই পাবেল মিয়া, সদরঘাট পুলিশ ফাঁড়ী ও এসআই সাইফুল ইসলাম, ওয়ারী থানা, শ্রেষ্ঠ এএসআই যৌথভাবে এএসআই মোঃ হেলাল উদ্দিন, মতিঝিল থানা ও এএসআই এম এ রিয়াজ পল্লবী থানা, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার এএসআই মোঃ হেলাল উদ্দিন, মতিঝিল থানা ও এএসআই এম এ রিয়াজ পল্লবী থানা, শ্রেষ্ঠ অস্ত্র উদ্ধারকারী অফিসার সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ রাশেদ হাসান, সবুজবাগ জোন, শ্রেষ্ঠ মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী অফিসার মোঃ ইয়াসীন গাজী পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্), বাড্ডা থানা ও শ্রেষ্ঠ চোরাই গাড়ী উদ্ধারকারী অফিসার এসআই মোঃ নাজমুল আলম, খিলগাঁও থানা, ডিএমপি।

ডিএমপি’র গোয়েন্দা বিভাগের শ্রেষ্ঠ বিভাগ যৌথভাবে নির্বাচিত হয়েছে গোয়েন্দা-পশ্চিম ও গোয়েন্দা উত্তর বিভাগ। শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হলেন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, মোঃ শাহাদত হোসেন সুমা, পল্লবী জোনাল টিম, ডিবি-পশ্চিম, চোরাই গাড়ী উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম হিসেবে মোঃ শাহাদত হোসেন সুমা, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, পল্লবী জোনাল টিম, ডিবি-পশ্চিম, অস্ত্র উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম হিসেবে মোঃ বদরুজ্জামান জিল্লু, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, উত্তরা জোনাল টিম, ডিবি-উত্তর বিভাগ, মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম হিসেবে মাহাবুবুল আলম, সহকারী পুলিশ কমিশার, মাদক উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিম, ডিবি-উত্তর বিভাগ, ও অজ্ঞান/মলম পার্টি গ্রেফতারে শ্রেষ্ঠ টিম হিসেবে মোঃ আজহারুল ইসলাম মুকুল, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, মিরপুর জোনাল টিম, ডিবি-পশ্চিম।

ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগের শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে ট্র্রাফিক-পূর্ব বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার কাজী হানিফুল ইসলাম সহকারী পুলিশ কমিশনার, উত্তরা ট্রাফিক জোন। শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর এ কে এম মঞ্জুরুল আলম, ইন্সপেক্টর, কোতয়ালী ট্রাফিক জোন। শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট যৌথভাবে সার্জেন্ট মোঃ সোহেল রানা, মহাখালী ট্রাফিক জোন ও সার্জেন্ট মোঃ বদরুল আলম, রামপুরা ট্রাফিক জোন।
বিশেষ ক্যাটাগরিতে পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন উপ-পুলিশ কমিশনার (রমনা বিভাগ, আইএডি বিভাগ, ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগ, ট্রাফিক পূর্ব বিভাগ, তেজগাঁও বিভাগ ও প্রটেকশন বিভাগ)।
ফেব্রুয়ারি, ২০২০ মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় বিশেষ পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন:
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: রুবাইয়াত জামান অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, তেজগাঁও জোন।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: মোঃ কামরুজ্জামান সরদার অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, উত্তরা জোন, উত্তরা বিভাগ।
সালাম পার্টির সদস্য গ্রেফতার: মোঃ সাইফুর রহমান আজাদ, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, লালবাগ জোনাল টিম, গোয়েন্দা (দক্ষিণ) বিভাগ।
প্রতারক গ্রেফতার: শামসুন আরেফীন অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, রমনা জোনাল টিম, গোয়েন্দা (দক্ষিণ) বিভাগ।
মোবাইল চোর গ্রেফতার: মোঃ গোলাম সাকলায়েন পিপিএম অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, গুলশান জোনাল টিম, গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ।
চোর গ্রেফতার: বদরুজ্জামান জিল্লু অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, উত্তরা জোনাল টিম, গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: মোঃ জুনায়েদ আলম সরকার অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিম, গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ।
ডাকাত গ্রেফতার: আতিকুল ইসলাম পিপিএম, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, মতিঝিল জোনাল টিম, গোয়েন্দা (পূর্ব) বিভাগ।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: মোঃ আনিছ উদ্দীন অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার, মোহাম্মদপুর জোনাল টিম, গোয়েন্দা (পশ্চিম) বিভাগ।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: মোঃ শফিকুল ইসলাম অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার, তেজগাঁও জোনাল টিম, গোয়েন্দা (পশ্চিম) বিভাগ।
চোর গ্রেফতার: আশরাফউল্লাহ অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার, সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।
ফেসবুকে অশ্লীল ছবি ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা দাবীকারী গ্রেফতার: মনিরুল ইসলাম অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার, সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: শাহ্ আলম সহকারী পুলিশ কমিশনার, শ্যামপুর জোন, ওয়ারী বিভাগ।
প্রতারক গ্রেফতার: জুলফিকার আলী সহকারী পুলিশ কমিশনার, খিলগাঁও জোন, মতিঝিল বিভাগ।
চুরি মামলার আসামী গ্রেফতার: জাকিয়া নুসরাত সহকারী পুলিশ কমিশনার, ক্যান্টনমেন্ট জোন, গুলশান বিভাগ।
ভারতীয় জালরুপিসহ আসামী গ্রেফতার: শাহিদুল ইসলাম সহকারী পুলিশ কমিশনার, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিম, গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ।
নব্য জেএমবির সদস্য গ্রেফতার: শেখ ইমরান হোসেন পিপিএম, সহকারী পুলিশ কমিশনার, কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগ।
আনসার আল ইসলামের ৫ জন সদস্য গ্রেফতার: আতিকুর রহমান চৌধুরী পিপিএম, সহকারী পুলিশ কমিশনার কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগ।
ফেসবুকে কুরুচিপূ্র্ণ পোস্টকারী গ্রেফতার: ইসতিয়াক আহমেদ, সহকারী পুলিশ কমিশনার, সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগ, (প্রতারক গ্রেফতার) ধ্রুব জ্যোতির্ময় গোপ সহকারী পুলিশ কমিশনার সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগ। জালটাকা ক্রয়- বিক্রয় চক্রের তিন আসামী গ্রেফতার: মোঃ সোলায়মান মিয়া, সহকারী পুলিশ কমিশনার, সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।

ডাকাত গ্রেফতার: মাজহারুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম (বার), অফিসার ইনচার্জ যাত্রাবাড়ী থানা।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: মোঃ ফারুকুল আলম, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত), কাফরুল থানা। চুরি মামলার আসামী গ্রেফতার: সুজিত কুমার সাহা, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্), ওয়ারী থানা।
ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার) মোহাম্মাদ ইয়াসীন গাজী পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্), বাড্ডা থানা।
ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি ভাইরালকারী গ্রেফতার: মোঃ মতলুবর রহমান পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগ।
আনসার আল ইসলামের ০১ সদস্য গ্রেফতার: মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগ।
ভেজাল ঔষধ আমদানীকারী দুই সদস্য গ্রেফতার: মোঃ সোহেল রানা, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।
তথ্য ও প্রযুক্তি মামলার আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ শিহাব বাহাদুর ধানমন্ডি থানা।
অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার: এসআই(নিঃ) মোঃ মনসুর হোসেন, ধানমন্ডি থানা। প্রতারক গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ সহিদুল ওসমান মাসুম, রমনা মডেল থানা।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) অমল কৃষ্ণ দে, শাহাবাগ থানা।
চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ শাহাদত হোসেন সূত্রাপুর থানা।
অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মুন্সী আব্দুল লোকমান, চকবাজার থানা।
ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার: এসআই (নিঃ) মোঃ ফজলুল করিম, কামরাঙ্গীচর থানা।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: এসআই (নিঃ) মোঃ আবু ছাইম, নবাবপুর পুলিশ ফাঁড়ি, বংশাল থানা।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার। এসআই(নিঃ) শহিদুল ইসলাম, বংশাল থানা।
সালাম পার্টির দুই সদস্য গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) জাহিদুল আলম, বংশাল থানা। চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) রুহুল আমিন, বংশাল থানা।
চোরাই মোবাইল ক্রয় বিক্রয় চক্রের এক সদস্য গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ শিহাবুল ইসলাম, কামরাঙ্গীরচর থানা।
চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ মাহমুদুল হাসান, কামরাঙ্গীচর থানা।
অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ নিজাম উদ্দিন, কদমতলী থানা।
চুরি মামলার আসামী গ্রেফতার: নারী এসআই(নিঃ) তামান্না আক্তারী, ওয়ারী থানা।
হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ শরিফুল ইসলাম, যাত্রাবাড়ী থানা।
ভিকটিম উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ লালবুর রহমান পিপিএম, শ্যামপুর থানা।
চুরি যাওয়া মোবাইল উদ্ধার: এসআই(নিঃ) মুঃ আশরাফুল আলম, পল্টন থানা। চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ ফারুক হোসেন, মতিঝিল থানা।
ভূয়া ডিবি পুলিশ আটক: এসআই(নিঃ) মোঃ নাজমুল আলম, খিলগাঁও থানা।

ছিনতাইকারী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোহাম্মদ এমদাদুল হক, খিলগাঁও পুলিশ ফাঁড়ি, খিলগাঁও থানা।
চোরাই ল্যাপটপ ও মোবাইল উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ রুহুল আমিন, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা।
নগদ টাকা, ল্যাপটপ ও মোবাইল উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোহাম্মদ বজলুর রহমান, কাফরুল থানা।
ভূয়া দুদক কর্মকর্তা গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) এসএম আবু রায়হান, ক্যান্টনমেন্ট থানা।
পর্নোগ্রাফি আইনে মামলার আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, ভাটারা থানা।
চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ আবু হানিফ মিলন, খিলক্ষেত থানা।
ভিকটিম উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ আব্দুস শাকুর, ভাটারা থানা।
চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) সিমন হাওলাদার, ক্যান্টনমেন্ট থানা।
চোর গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ মোশারফ হোসেন, গুলশান থানা।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, বিমানবন্দর পুলিশ বক্স ।
চাঁদাবাজ গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) প্রাণ কৃষ্ণ সরকার, সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।
ভূয়া পুলিশ গ্রেফতার: এসআই(নিঃ) মোঃ হাসানুজ্জামান, সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।
পরিত্যক্ত অবস্থায় দশ বছর বয়সের একজন ছেলে উদ্ধার করে মায়ের কাছে সোপর্দ: সার্জেন্ট মোঃ আর এ রোকন, উত্তরা ট্রাফিক জোন।
ছিনতাইকারী গ্রেফতার: নারী সার্জেন্ট সাবিনা ইয়াছমিন, রামপুরা ট্রাফিক জোন। ছিনতাইকারী গ্রেফতার: সার্জেন্ট বাদল কুমার চক্রবর্তী, ট্রাফিক পূর্ব বিভাগ। ছিনতাইকারী গ্রেফতার: সার্জেন্ট সুব্রত কুমার গাইন, সবুজবাগ ট্রাফিক জোন।

চুরি যাওয়া মোটর সাইকেল উদ্ধার: এএসআই মোঃ জাকির হোসেন, রামপুরা ট্রাফিক জোন।
ছিনতাই হওয়া সিএনজি উদ্ধার: এএসআই মোঃ আব্দুল করিম, রামপুরা ট্রাফিক জোন।
ডাকাত গ্রেফতার: এএসআই (নিঃ) মোঃ দ্বীন ইসলাম, সূত্রাপুর থানা।
চুরি যাওয়া আটটি মোবাইল উদ্ধার: এএসআই (নিঃ), মোঃ তরিকুল ইসলাম, হাতিরঝিল থানা।
চুরি যাওয়া পনেরটি মোবাইল উদ্ধার: এএসআই (নিঃ) মোঃ আ: কাদির, গুলশান থানা ও
মোবাইল চোর গ্রেফতার: এএসআই (নিঃ) মোঃ মিজানুর রহমান, বিমানবন্দর থানা, উত্তরা বিভাগ।